Monday, October 24, 2016

MTRC Mirror Board 24 Oct 2016

                                                                          Grand Total

Total Vehicle  Maintenance  Total Run   Total Program Income

603  40  563   506 ৳2,443,669
 









 





 
 
 
 









MTRC Mirror Board of MGI 23 oct 2016

                                             Grand Total

Total Vehicle Maintenance Total Run   Total Program  Income

603 50 553   546 ৳3,127,964






Friday, March 6, 2015

[অনেক বছর ধরে কুরআন শরিফ সতর্কতার সাথে অধ্যয়ন করে নেতৃস্থানীয় আমেরিকান গবেষক প্রফেসর ওয়াগনার এই উপসংহারে উপনীত হয়েছেন যে, এই পবিত্র গ্রন্থের মাধ্যমে আল্লাহ তায়ালা বিশ্বের সব মানুষের উদ্দেশে বক্তব্য দিচ্ছেন।

প্রফেসর ওয়াল্টার ওয়াগনার
[অনেক বছর ধরে কুরআন শরিফ সতর্কতার সাথে অধ্যয়ন করে নেতৃস্থানীয় আমেরিকান গবেষক প্রফেসর ওয়াগনার এই উপসংহারে উপনীত হয়েছেন যে, এই পবিত্র গ্রন্থের মাধ্যমে আল্লাহ তায়ালা বিশ্বের সব মানুষের উদ্দেশে বক্তব্য দিচ্ছেন।
এই বক্তব্যই ওয়াগনার পাঠক, শিক্ষার্থী এমনকি নিজেকেও জানাতে চেয়েছেন গভীরতর উপলব্ধির জন্য। তার লেখা ওপেনিং দি কুরআন (কুরআনকে উন্মুক্ত করা) একটি বিস্ময়কর বই, যা মুসলিম-অমুসলিম এবং বিভিন্ন ভাষাভাষী নির্বিশেষে সবাইকে প্রেরণা জোগাবে। বইটিতে অনন্যভঙ্গিতে ধাপে ধাপে আল কুরআনের সামগ্রিক পরিচয় তুলে ধরা হয়েছে। তিনি আংকারা থেকে প্রকাশিত সানডে’জ জামান পত্রিকার সাথে সাক্ষাৎকারে কুরআনের সাথে তার পরিচয় সম্পর্কে বিশদ বলেছেন।]

প্রশ্ন : প্রথমে আপনি খ্রিষ্টধর্মের আদিযুগের ওপর কাজ করছিলেন। তাই জানতে ইচ্ছা করে, আল কুরআন সম্পর্কে বই লেখার প্রেরণা পেলেন কিভাবে?
উত্তর : বিশ বছরেরও বেশি দিন ধরে শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা থেকে এটি লিখেছি। আমি মনে করি, মাত্র কুরআন বুঝতে শুরু করেছি। তবে প্রকৃতপক্ষে ইহুদিধর্ম, খ্রিষ্টধর্ম ও ইসলামের মধ্যে শুধু ধর্মতত্ত্ব ও সংস্কৃতি নয়, ইতিহাসের দিক দিয়েও সম্পর্ক রয়েছে।
অতীতে কোনো কোনো সময়ে আমরা একে অন্যের মাথায় মাথা লাগিয়ে ধাক্কা মেরেছি, অন্যান্য সময়ে সশস্ত্র সঙ্ঘাতে হয়েছি লিপ্ত। তবে আমরা একই স্রষ্টার উপাসনা করি। অভিজ্ঞতা থেকে বলব, এই উপাসনার জন্য অন্যের ধর্মকে বোঝার পথ খোলা রাখা চাই।
আমি খুবই সৌভাগ্যবান যে, মুসলিম নারী-পুরুষ সম্পর্কে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পেরেছি! বিশেষ করে তুর্কি সম্প্রদায়কে জেনেছি গত সাত বছর। পূর্বোক্ত বইটি লেখার একটা বড় উদ্দেশ্য ছিল, পরস্পরকে বোঝা যখন জরুরি, তখন প্রথমে নিজেকে বিষয়টি বুঝানো এবং এরপর অন্যদেরকে বুঝিয়ে বলা।
প্রশ্ন : আপনি যখন কুরআন শরিফ পড়ছিলেন, তখন কার কণ্ঠের কথা আপনার মনে পড়েছিল? কথা বলছিলেন কে?
উত্তর : আমি বিশ্বাস করি, কুরআন প্রত্যাদেশমূলক গ্রন্থ। বিধাতা অনেক ব্যক্তি, অনেক নবী-রাসূল, বার্তাবাহকের মাধ্যমে প্রত্যাদেশ দিয়েছেন। কুরআনে আমাদের উদ্দেশে কথা বলে মহান স্রষ্টারই কণ্ঠ। এটি শান্তি ও সুবিচারের কণ্ঠ। এই কণ্ঠ সে সব মানুষের কথা বলে যারা শান্তিতে একত্রে থাকা দরকার মনে করে আর প্রয়োজন বোধ করে বিশ্বের অন্য সবার জন্য এক হয়ে কাজ করার। আমি সেই কণ্ঠ শুনেছি। সেই কণ্ঠ পাঠক ও শিক্ষার্থীদের এবং আমার উপলব্ধি গভীর করার জন্য নিজেকেও শোনাতে চেষ্টা করেছি।
প্রশ্ন : আপনি আরবি পড়তে পারেন কি না নিশ্চিত নই। সম্ভবত অনুবাদের ওপর জোর দিয়েছেন। কিভাবে কাজ করেছেন, অধ্যয়ন করলেন?
উত্তর : অমুসলিম হিসেবে কুরআন প্রথম কয়েক দফা পড়াটা সম্ভবত বিস্ময়কর অভিজ্ঞতা। আমরা যারা বাইবেলের ঐতিহ্য থেকে এসেছি, তাদের প্রত্যাশা হলো কুরআনেও বাইবেলের জেনেসিস, এক্সোডাস কিংবা গসপেল অব মার্কের মতো বিভিন্ন অধ্যায়ের দেখা পাবো। হ্যাঁ, কুরআনেও বিভিন্ন অংশে ভাগ করা আছে। সবগুলো মিলে একটি পূর্ণরূপ পেয়েছে। কুরআন বারবার পড়তে হয়। এ বিষয়ে চিন্তা করতে হয় বারবার আর বোঝার জন্য মাথা চুলকাতে হয় বহুবার। তবে আমি মনে করি, প্রথম পদক্ষেপ হলো, উৎসাহ না হারানো। পয়লা পরামর্শ দেবো, কুরআনকে পেছন থেকে শুরু করে সামনের দিকে পড়–ন নবীকে বোঝার জন্য। তাঁর প্রতি শান্তি বর্ষিত হোক। কুরআনের সাথে অন্যরা কী বলেছেন, তা-ও পড়তে হয়।
প্রশ্ন : বাইবেলীয় ঐতিহ্য ও কুরআনের মিলগুলো কী কী, আর গরমিলই বা কী, আমাদের বলুন।
উত্তর : মৌলিক পার্থক্য হলো, বাইবেল ও কুরআনের পরস্পর থেকে ভিন্ন প্রকৃতি। অবশ্য বাইবেল ও কুরআনে অভিন্ন ত্রিশজন সম্পর্কে আলোকপাত করা হয়েছে। একটি বিষয় হলো (মুসলিম শিক্ষার্থীরাও যার সাক্ষ্য দেবে), উভয় গ্রন্থে কোনো কোনো সময়ে আমরা একই ভাষা ও শব্দ পাই। তবে মূলনীতি ও ধারণা পরস্পর পৃথক।
মুসলমানরা বিশ্বাস করে, কুরআনের প্রতিটি শব্দ, প্রত্যেক বর্ণ আল্লাহ-প্রদত্ত। বাইবেল সম্পর্কে খ্রিষ্টানরা এটা মনে করে না। নির্দিষ্ট কোনো ভাষার প্রতি খ্রিষ্টানদের বিশেষ আকর্ষণ বা শ্রদ্ধা নেই। আমরা বাইবেলের অনুবাদ পড়তেই স্বচ্ছন্দ বোধ করি। এর পাণ্ডুলিপির বিভিন্নতা এবং একই কাহিনীর নানারকম বয়ান দেখেও আমি অস্বস্তি বোধ করি না। মুসলিম ছাত্রছাত্রী জিজ্ঞেস করতে পারে, ‘আসল ঘটনা কী?’ খ্রিষ্টান হিসেবে আমার কাছে এটা সমস্যা নয়। তবে শিক্ষক হিসেবে মুসলমানদের কাছে এর ব্যাখ্যা দেয়া এবং মুসলিম ছাত্রছাত্রীদের দৃষ্টিভঙ্গি জানার ক্ষেত্রে অবশ্যই আমাকে সতর্ক থাকতে হবে।
আমরা খ্রিষ্টান ও মুসলিমরা অভিন্ন অনেক নবীর ওপর বিশ্বাস রাখি। তবুও তাদের সম্পর্কে আমাদের প্রত্যাশা পৃথক। আমাদের উভয়ের একই বিশ্বাস যা, তা হলো একজন মহান সৃষ্টিকর্তা আছেন যিনি তাঁর প্রতি বাধ্য থাকতে বলেন। তিনি বিশ্বাসীদের একটি সমাজ নির্মাণ করতে বলেন, যারা তাঁর ইচ্ছা পূরণ ও উপাসনার জন্য উৎসর্গিত। অবশ্য, বার্তাবাহক ও নবী বলতে কী বুঝায়, সে ব্যাপারে খ্রিষ্টান ও মুসলমানদের মাঝে বড় পার্থক্য আছে। ইসলামের বিধান অনুযায়ী, একজন নবী শুধু ঐশী প্রত্যাদেশপ্রাপ্তই নন, তাঁকে পরিপূর্ণও হতে হবে। তাই বাইবেল পড়ে মুসলমানরা কারো কারো ব্যভিচার ও খুন করা নিয়ে প্রশ্ন তুলবে। কারণ এগুলো ঘৃণ্য অপরাধ। তাদের প্রশ্ন, ‘যারা এমন পাপী, তোমরা তার অনুসরণ কিভাবে করতে পারো?’
প্রশ্ন : খ্রিষ্টান ও মুসলমানদের পবিত্র গ্রন্থে ঈসা আ:, মুহাম্মদ সা: এবং অন্যদের কিভাবে চিত্রিত করা হয়েছে? তাঁদের মিল-অমিল কী কী?
উত্তর : আমার মুসলিম ছাত্রছাত্রীরা সব সময়ই তাদের খ্রিষ্টান সহপাঠীদের অবাক করে দেয়, যখন তারা জানায়, ‘ভালো মুসলিম হতে হলে ঈসা আ:-এর ওপরও ঈমান আনতে হবে।’ তিনি কুমারী মাতার গর্ভে জন্ম নিয়েছিলেন। অলৌকিক কাজকর্ম করেছেন; তিনি ক্ষুধার্তকে খাইয়েছেন, রুগ্ণকে করেছেন সুস্থ, মৃতকে করেছিলেন পুনর্জীবিত। তাঁকে মসিহ বলা হয়। পৃথিবীর শেষ যুগে তিনি আসবেন আবার। তিনি ছিলেন শিক্ষক; তাঁর ছিল শিষ্য। তিনি মানুষকে আহ্বান করেছেন আল্লাহর পথ অনুসরণের দিকে। কুরআনে ঈসা আ:-কে এভাবে তুলে ধরার সাথে বাইবেলের মিল রয়েছে। অবশ্য খ্রিষ্টধর্ম ও ইসলামের মূল পার্থক্য হলো, ঈসা আ:-কে ক্রুশে বিদ্ধ করা এবং তাঁর পুনরুত্থান প্রসঙ্গ।
মূসা আ:-সহ অন্য নবীদের কয়েকজন প্রসঙ্গে কুরআনে যা বলা হয়েছে, তার সাথে মিল আছে ইহুদিদের বিশ্বাসে। অর্থাৎ এই দুইয়ের মাঝে সঙ্ঘাত নয়, সম্পর্ক বিদ্যমান। আর আমি সহজ কথায় যা বুঝি, তা হচ্ছে মূসা আ: এলেন এবং সরকারকাঠামো প্রতিষ্ঠা করলেন। অপর দিকে ঈসা আ: এসে মানুষকে আধ্যাত্মিক জীবনের সন্ধান দিয়েছেন কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি ছাড়াই। খ্রিষ্টানরা পরবর্তীকালে এটা যোগ করেছে। নবী মুহম্মদ সা: এলেন। তিনি এমন একজন, যাঁর ‘পার্থিব’ ও ‘আধ্যাত্মিক’ দু’টি দিকই আছে। তিনি উভয়কে একত্র করেছেন। স্রষ্টা বিশ্বকে ভালোবাসেন এবং এর পরিচর্যা করেন। অতএব আপনাদেরকেও অবশ্যই এ কাজ করতে হবে। একই বিধাতা নবীদেরকে পাঠিয়েছেন।
প্রশ্ন : কুরআন অধ্যয়ন করে কিভাবে প্রভাবিত হয়েছেন? এটা কি আপনার জীবনে কোনোভাবে পরিবর্তন এনেছে?
উত্তর : এর মাধ্যমে যে ক’টি খুব গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব পড়েছে, তার একটি হলো আমি নামাজের ভিত্তিতে ইসলাম ও কুরআন বুঝতে পেরেছি। নামাজের খুবই পবিত্র একটা অনুভূতি আছে এবং নামাজের মধ্য দিয়ে একটি জীবন গড়ে তোলা যায়। ইসলাম সম্পর্কে যৎকিঞ্চিৎ বুঝেছি। এতে ধারণা হয়েছে, এই ধর্মের ভিত্তি হলো সৃষ্টিতত্ত্ব। আমার ওপর এ বিষয়টির প্রচণ্ড প্রভাব পড়েছে নৈতিকভাবে।
- See more at: http://www.onnodiganta.com/article/detail/3849#sthash.bqCggYq9.dpuf

বাঙ্গালী বলে কথা!

বাঙ্গালী বলে কথা!
এম ডি মিজান
email- mizanazad91@gmail.com
আজ নামিবে বুকের পাঠা খুলে,
এক বিজয়ী দল!!!
তাদের দেখে তোরা মারহাবা বল।

আজ তোপের মুখে ঝড় উঠবে,
আজ নেচে গেয়ে দর্শক মাতাবে,
আজ গর্জে উঠবে বাংলাদেশ।।
আজ বোবা মুখে কথা ফুটবে,
আজ দু:খী খটখটিয়ে হাসবে,
তাদের দেখে জাগবি বেশ।
আজ গর্জে উঠবে বাংলাদেশ।।
আজ সোনা চিনিয়ে আনবে,
আজ নব আশা সঞ্চারিত হবে,
পরাজিত হবে পরাজয়ের লেশ,
আজ গর্জে উঠবে বাংলাদেশ।।
আজ কেন জানি মনে হবে,- বীর বাহাদুর,
সব খুলে ফেল গ্লানীর চাদুর।
চল প্রাণের উচ্ছাসে করি আমেজ।
আজ গর্জে উঠুক বাংলাদেশ।।
আজ ফাটিয়ে দাও বিশ্বের রাঙ্গা চোখ,
এদেশের যত আছে খ্যাতি সবি আজ বাজুক,
দাও বুঝিয়ে দাও আমার-ই রাজেস,
আজ গর্জে উঠবে বাংলাদেশ।।।

দেখে এলাম ৩৫তম বিসিএস

দেখে এলাম ৩৫তম বিসিএস,
ভাবছেন কিভাবে দেখে এলাম? ৩৫তম বিসিএস এর Applicant হিসাবে দেখে এলাম, এ প্রথমবারের মত Competition জন্য নয় শধু (মাত্র) বিসিএস দেখার জন্য পরীক্ষা দিতে গেলাম, মোবাইল Allow ছিলনা তানাহলে সেলফি মেরে দেখাতে পারতাম, দুঃখিত। পরীক্ষাটা যাই হোক মজাটা অনেকখানি বেশি হইছে সাথে আমার বন্ধু ‪#‎হাছিব‬ । তবে একটা কথা হলফ্ করে বলতে পারি ২০০ মার্কে এই পরীক্ষায় Negative Marks ০.৫ পয়েন্ট প্রতি দু’ভূলের জন্য ১ নাম্বার মাশুল সুতরাং আমাকে নাম্বার না দিতে পারলেও আমার কাছে হয়ত নাম্বার পাওনা থাকতে পারে, কি করব বুঝতে পারতাছিনা? আমার সাইড ম্যান ওনার কিছু দিন আগে না দেখা বিদেশী বাবু পৃথিবীতে এসেছে (বাবু) তার জন্য পড়তে পারেনি বেচারী আমার দেখে সবকয়টা দাগিয়েছে আফসুস তার জন্য খামাখা-৭৫০/- মাটি করল। পরীক্ষার দু’ঘন্টা মাথাটা প্রশ্ন থেকে উপরে উঠাইনি পুরো প্রশ্ন পড়ে মাল্টিপল আইকিউ চয়েজ প্রদ্ধতিতে (মনমত) গুটিকয়েক ছাড়া বাকি সবকয়টা দাগিয়ে এসেছি। পরীক্ষাটা যাই হোক একটা জিনিস ভেবে দারুন বোধ করছি রেজাল্ট দেওয়ার আগ পর্যন্ত আমি ক্যাডার (বিসিএস) বলতে-ত পারিনা আন্দাজি দাগিয়ে যদি বিসিএস পাশ করে বসি!!??? তাহলে কি হবে ভেবে দেখেছেন???
কি আর হবে আন্দাজি দাগিয়ে বিসিএস পাশ করার জন্য গ্রিনিজ বোকে আমার নাম উঠবে আরকি!!!

Tuesday, June 24, 2014

চার বছরেওপায়নি বৈদ্যুতিক খুটি।


আজ আসবে,কাল আসবে,একমাস ধৈয্য ধরেন চলে আসবে,দীঘ চার বছর চলে গেলেও এখন ওখোজ নেই বৈদ্যুতিক খুটির।
কুমিল্লা জেলার লাকসাম উপজেলা বাকই ইউনিয়নের নুরপুর গ্রামের এক ভৌক্তভোগী এই ভাবে বলতে শুরু করেন।
তিনি আর বলেন,আমি চার বছর আগে খুটির জন্য আবেদন করি। পরবতীতে বার বার অফিসে যোগাযোগ করলেওকোন খোজ খবর পায়নি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অফিস কমকতাকে অতিরিক্ত দশ হাজার টাকা দিয়ে মোট ত্রিশ টাকা খরছ করে এখন ও পায়নি খুটি।
বৈদ্যুতিক কোন অফিস কমকতা যদি আমার এই স্ট্যাটাস পেয়ে থাকেন,তাহলে বলবেন কি?
এই ভৌক্তভোগী লোকদের আর কত ধৈয্য ধরতে হবে।

Monday, August 26, 2013

how to setup domain in joomla website

Move joomla site to new server : 06-02-2013


 
So you want to move your move a joomla 2.5 site to a new server? Confused with all the half finished or techno babble guides? Well don't worry, our 'Migrate your Joomla! Site to a new server guide' below will show you the way. We have listed literally every step with pictures so even a Joomla! newbie can move hosting companies.
Before doing any of the below steps, you will need some new hosting for your Joomla! site. If you haven't got some already, see our Joomla Hosting page.

Step 1 : Back up your Joomla! site

The first thing we need to do is backup your Joomla! site's database and files. This can often be done via your Hosting's control panel automatically and if you have this feature we suggest you use it and skip to step 2. If not, don't worry just follow the below steps and you'll have your Joomla! site all backed up in no time.

Step 1a : Backup your Joomla! Database

To backup your Joomla! database you will need to ask your hosting company for access to phpMyAdmin. This is an online admin area where you can view your databases and edit/export them. Once you have found phpMyAdmin, load it up and look for your Joomla! database then look for your Joomla! table. These will probably be called Joomla-XXXX or something similar. You should see them on the left hand side, click them to open.
Select Joomla Database
If you have the right database, you should see a list of tables with names like bak_jos_assets and bak_jos_associations. Click the 'Export' Tab.
Export Joomla Database
We're not going to export the database as a compressed Zip file to speed up download times. To do this click the custom button to reveal the hidden export options.
Phpmyadmin
Make sure all the tables are highlighted (if not click 'select all') then from the compression drop down choose 'Zipped'.
Scroll to the bottom and click go. It will ask you to save a file to your computer. Put this in a new folder called 'Jooma DB Backup'.

Step 1a : Backup your Joomla! files via FTP

Backing up your files via FTP is actually very simple when you use a program such as Filezilla. This is a free program which can be downloaded from here. In the below guide, we will use FileZilla and show you how to connect and backup your files.
The first thing we will need to know are your current servers FTP details (Host, user name, password and port number). This is usually provided to you in a welcome e-mail when you buy your hosting or can be found in your hosting control panel.
Open up FileZilla and enter your FTP Host, User name, Password and port in the boxes at the top then click 'Quick connect'.
Joomla! FTP connect
FileZilla should now connect to your server and when done should display some folders. These folders vary depending on which hosting company you are with. What we need to do now is navigate to the folder where your Joomla! site is installed. This folder is usually called htdocs or public_html. Double click this folder to navigate into it.
Public_html
Once in your Joomla! directory (you should see files like index.php, configuration.php, hide_config_files.php etc if you're in the right directory). You will need to highlight all the files listed and copy them to a folder on your computer. In this Guide we copied them into a folder on our desktop called 'old site'. To do this, simply click on any file once to highlight it, then press the CTRL key on the keyboard and the letter A at the same time. This should highlight every file for you. Then it's simply a case of clicking on a file and whilst still keeping the mouse button pressed, moving the mouse over your folder (old site), then letting go of the mouse.
Download / Move Joomla Files
If you did this correctly, you should see a lot of green and black writing appear at the top and files should start appearing in the 'old site' folder on your desktop.
Transfer Joomla Files
Once FileZilla has finished downloading all the files, the text will stop scrolling and display something along the lines of 'File transfer successful, Status: Disconnected from server'. You can now close FileZilla.

Step 2a : Set up a new Joomla! database

We now need to set up a new database for Joomla! on the new server. The below guide explains how to do this on our servers but for other servers, you will need to look in your control panel for something like "MySQL" and "create new database". Once you have created the database you will need to log into it.
Squirrel Hosting customers can click the control panel in the top right at www.squirrelhosting.co.uk.
Control Panel
Enter your Squirrel Hosting user name and password then click login.
Login
Click 'Manage your hosting'.
Manage your hosting
Click 'Load eXtend Control panel'.
Load control panel
In the pop up window, click the MySQL icon
Mysql Icon
Under the 'Create a MySQL Database' section enter a user name and password of your choice. Click the 'create' button.
Create Mysql Database
Next click the 'manage' button next to the database you have just created to load up phpMyAdmin.
Manage Mysql Database
Make a note of the User name and password as you will need these later.

Step 2b : Import your old Joomla! Database

Once in phpMyAdmin, click into your new database if you're not already in it..
New Joomla Database
Click the import tab at the top.
Import Mysql Database
Click the 'choose file' button and find the database backup of your Joomla! site (this is the Zip file we downloaded in step 1a), then click the go button.
Choose database
If everything went correctly, you should see a "Import has been successfully finished..." message.

Step 2c : Edit your Joomla! Configuration file.

In the folder you downloaded your Joomla! site to (in step 1b) you should see a file called configuration.php. This file contains details your Joomla! website needs to communicate with the database. Since we have made a new database, we will need to update the details in this file to contain the correct information.
Open up the file in a plain text editor such as notepad and scroll to line 15 where you should see something like the below;
public $host = 'localhost';
public $user = 'YOUR OLD DATABASE USERNAME';
public $password = 'YOUR OLD DATABASE PASSWORD';
public $db = 'YOUR OLD DATABASE NAME';
	    
You will now need to edit these to contain your new information:
  • public $host : This is usually localhost.
  • public $user : This is the new database user name you set up in step 2a.
  • public $password : This is the new database user name you set up in 2a.
  • public $db : This is the name of your new database (on Squirrel Hosting this is the same as your user name)
Further down the file you will see the following lines;
	public $log_path = '/home/sites/YOURDOMAIN/public_html/logs';
	public $tmp_path = '/home/sites/YOURDOMAIN/public_html/tmp';
	    
These we will need to edit with our new paths later. We have made a file which you can download and use to find these paths later on in Step 5. Alternatively you can contact your current host who may be able to inform you of them.
Save the configuration file and close it for now.

Step 3 : Uploading your Joomla! sites files

The next step is to upload all your old Joomla! files to the new server. To do this we need to connect via FTP and drag the files from the 'old site' folder onto the new hosting public_html (or htdocs) folder.
Squirrel Hosting users can find their FTP details (and unlock the FTP) using the below guide. If you're using another company, you will need to ask them for your new FTP details.
Log into your squirrel hosting account at www.squirrelhosting.co.uk and click 'manage web hosting'. Then click, 'Load eXtend Control panel'. Once loaded, scroll down and on the right hand side you should see a box labelled 'unlock FTP'. Choose 1 Hour from the options and click the unlock button.
Unlock FTP
Next scroll down a bit further and you will see your FTP Host/server user name and password. Write these down.
FTp Details
Next, open up FileZilla and enter your new host's connection details (the ones from above) in the boxes at the top. For Squirrel Hosting you may leave the port blank.
ftp into drupal
Next, double click on public_html or the equivalent folder if using another hosting company.
drupal public html
Next we need to upload all the files we downloaded from your old host. Locate the folder where these files are stored (old host) and highlight all the files in the folder (CTRL+A). Finally left click on the files and drag them over onto the empty public_html folder window.
Upload Joomla Files
You will see lots of writing appear and scroll in the status window. Once this stops, your upload is complete
TIP : check at the bottom for any failed transfers, if you see any repeat the step above.

Step 5a : Update your domains name servers.

Your new server now has a working Joomla! site. Problem is your domain name will still be loading the old server. To get around this we need to update the domain name to point to the new hosting company. Contact the company you bought the domain name with and ask them to update the name servers to your new hosting company. Squirrel Hosting's name servers can be found here. Alternatively you could place an order for a domain transfer to the same company your hosting is with. This usually updates the name servers for you automatically.
Once the name servers have been updated (this can take up to 48 hours), you should be able see your website on your new server.

Step 5b : Locate your log_path and tmp_path

In step 2c we saw the following lines in our configuration.php file;
	public $log_path = '/home/sites/YOURDOMAIN/public_html/logs';
	public $tmp_path = '/home/sites/YOURDOMAIN/public_html/tmp';
	    
To find these paths you can upload a small file we have made here. Unzip this file and upload it to your new website's root directory (public_html or htdocs). Then using your browser visit <your domain>/path.php
You should see a message saying what your full path is and what your log_path and tmp_path should be.

Step 6 : Edit your configuration.php file

This is the final step of your Joomla! Transfer. Open up the configuration.php file (either the one you have on your PC or whilst in FileZilla, right click on the file and click edit) and alter the log_path and tmp_path to your new settings. Then save the file and upload it. (FTP drag and drop the file via FileZilla)

Your Joomla! Site transfer is complete

That's it - you're all set! Has this guide helped you move your Joomla! site to a new server? Have you had any issues with the above guide or found something we've missed? If so let us know in the comments below.

Like our blog post? Dont forget to share!

Your Comments on Move joomla site to new server

 
What other customers have recently purchased :
Free E-mail Only Hosting

Sunday, August 25, 2013

Nice pic............










সমীক্ষায় দেখা গেছে বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সারদের ১২% ই এসইও রিলেটেড কাজ করেন,তাছাড়া নতুন অনেকেই কাজ করা শুরু করছেন। এসইও নিয়ে কাজ করার গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে আপনার নিজস্ব ফিল্ডে নিয়মিত আপ টু ডেট থাকা, এসইও এনালাইসিস টুলসগুলোর ব্যবহার সম্পর্কে অবগত থাকা। এসইও তে ভালো করতে হলে আপনাকে অবশ্যই নিয়মিত বিভিন্ন এসইও ব্লগ এবং ফোরাম গুলোতে ভিজিট করতে হবে, জানতে হবে বিভিন্ন টুলস এর ব্যবহার। 

তাই, আজ আপনাদের সাথে দশটি এসইও এনালাইসিস টুলস শেয়ার করবো, আশা করি এটি আপনার এসইও ক্যারিয়ার ফিল্ডকে আরো শক্তিশালী করবে, যে কোন কঠিন মূহুর্তেও চ্যালেঞ্জ নিয়ে এগুতে সাহায্য করবে। 

১. ওর্যাওঙ্কঃ প্রিমিয়ায় একাউন্ট ছাড়াই ইন্সট্যান্ট ওয়েবসাইট রিভিউ দেয়, এমন একটি টুল হল ওর্যা ঙ্ক। অবশ্য প্রিমিয়াম একাউন্ট ছাড়া আপনি প্রতি সপ্তাহে একটি মাত্র রিপোর্ট জেনারেট করতে পারবেন কিন্তু আপনি আগের জেনারেট করা রিপোর্টগুলোও দেখতে পারবেন। তাছাড়া এই টুলটি সাত দিনের আনলিমিটেড ফ্রী ট্রায়াল অফার করছে, এই সাত দিনেআনলিমিটেড রিভিউ জেনারেট করতে পারবেন।
http://www.woorank.com/

২. হাবস্পটস মার্কেটিং গ্রেডারঃ 
এই লিষ্টের অন্যান্য এসইও এনালাইসিস টুলের মতই হাবস্পটস মার্কেটিং গ্রেডার আপনার কোম্পানির মার্কেটিং ইফোর্টের উপর ফোকাস করে।
http://marketing.grader.com/

৩. সাইটট্রেইলঃ এটি একটি ফ্রি “অল ইন ওয়ান” ওয়েবসাইট এনালাইসিস টুল। 
http://www.sitetrail.com/analysis/

৪. ট্রাফিক ট্রাভিসঃ এটি একটি ডেক্সটপ এপ্লিকেশন। আপনার সাইটের অন পেজ এসইও এনালাইজ করতেও সহায়তা করবে।
http://www.traffictravis.com/

৫. এসইও ওয়ার্কারসঃ http://www.seoworkers.com/tools/analyzer.html

৬. লিপারিঃ অন্যান্য এসইও টুলসগুলোর মত এত জনপ্রিয় না হলেও এনালাইসিসে এটা বেশ পাকা একটা টুল। http://www.lipperhey.com/

৭. স্পাইডারমেটঃ এদের সবচেয়ে দরকারি দুটো এনালাইসিস টুল হল “স্কোরকার্ড” এবং “অডিটর”।
https://spydermate.com/

৮. ডাইএসইওঃ ফ্রি ওয়েবসাইট গ্রেডার অফার করে।
http://www.diyseo.com/free-tools/seo-report-card

৯. এসইওঅপটাইমারঃ আপনার দেয়া সাইট ইউআরএল এর অন পেজ এসইও র্যা ঙ্কিং ফ্যাক্টর গুলো খুজতে সহায়তা করে।
http://www.seoptimer.com/

১০. ফ্রী এসইও এনালাইসিসঃ এসইও অডিট এ আমরা যে ইনফরমেশন দিয়ে থাকি, এই ফ্রী এসইও এনালাইসিস টুলটি তার একটি ছোট্ট সাবসেট প্রদান করে থাকে।
http://www.webgnomes.org/free-seo-analysis/


আশা করি, এই টুলসগুলোর সঠিক ব্যবহার আপনার এসইও ক্যারিয়ারকে আরও দক্ষ করে তুলবে।

ভাল লাগলে শেয়ার করে বন্ধুদেরকে জানিয়ে দেবার অনুরোধ রইল।।

Tuesday, June 25, 2013

Joomla 2.5


জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস ফেসবুক শেয়ার

joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস সিএসএম একটি অনলাইন বেসড সফটওয়্যার যা আপনার ওয়েবসাইটের প্রতিটা জায়গা আলাদা আলাদা ভাবে ভাগ করে কাজ করার সুযোগ দিয়ে থাকে। আপনার সাইটের কন্টেন্ট গুলো আরও সহজে ও সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করার সুযোগ আপনি পাবেন সিএমএস দিয়ে। কন্টেন্ট হতে পারে ছবি, লিখা, মিউসিক, ভিডিও, ইত্যাদি। সিএমএস ব্যবহারের সব থেকে বড় সুবিধা হল আপনাকে প্রোগ্রামিং জানতে হবে না। প্রোগ্রামিং এর ধারণা ছারাই আপনি সিএমএস ব্যবহার করতে পারবেন সাধারণ কিছু ধারণা থাকতে হবে কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট এর উপরে।জুমলা একটি অসাধারণ শক্তিশালি এবং খুব জনপ্রিয় সিএমএস। ওয়েব সাইত তৈরিতে জুমলা এখন খুব চাহিদা। আপনি যে কোন ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন জুমলা দিয়ে। ওয়ার্ডপ্রেস এর মত এটিও অনেক বেশি শক্তিশালি একটি সিএমএস। জুমলা তে রয়েছে অনেক ধরনের সুবিধা যা আপনাকে আরো সহজ করে দিয়ে ওয়েব সাইট তৈরি করতে। এই অত্যান্ত গুরুত্ব পূর্ণ বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত ও সহজবোধ্য ভাষায় পোষ্ট করেছেন টিজে মহা প্লাবন। টিউনারপেজের পক্ষ থেকে টিজে মহা প্লাবন-কে অগনিত শুভেচ্ছা ।।
শেষ পর্ব না পাওয়া পর্যন্ত আমাদের সাথেই থাকুন। যখনি টিজে নতুন পর্ব লিখবেন এখানে সেই পর্বটি আপডেট করে দেয়া হবে
লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

সালাম অ নমস্কার সবাইকে। আসা করি সবাই ভাল আছেন আজকে থেকে নতুন একটি ধারাবাহিক লিখা শুরু করলাম সেটা হল জুমলা। এই জুমলা একটি অসাধারণ শক্তিশালি এবং খুব জনপ্রিয় সিএমএস। ওয়েব সাইত তৈরিতে জুমলা এখন খুব চাহিদা। আপনি যে কোন ধরনের [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

সালাম ও নমস্কার সবাইকে। চলছে আমাদের ওয়েবসাইট তৈরি করুন জুমলা (CMS) দিয়ে – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল। স্বাগতম জানাই আপনাকে আমাদের ক্লাস ২ এ। জুমলা আপনি বিভিন্য ভাবে ইন্সটল করতে পারবেন। আজকে আমরা একটি পদ্ধতি দেখে নিব। এই পর্বে আমরা দেখব কিভাবে [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

সালাম ও নমস্কার আবারো হাজির হয়ে গেলাম জুমলা ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল নিয়ে। আজকে আমরা আছি ক্লাস ৩ এর মাঝে। আমি বলেছিলাম জুমলা অনেক ভাবে ইন্সটল করা যাবে। ক্লাস ২ এ দেখেছিলাম এক রকম ভাবে আজকে আমারা অন্য ভাবে জুমলা ইন্সটল করা [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

নমস্কার এবং সালাম সবাইকে আসা করি সবাই ভাল আছেন ব্লা ব্লা ব্লা…। শুরু করেছিলাম জুমলা নিয়ে বাংলা টিউটোরিয়াল। ইতিমধ্যে এই সিরিজের ৩টি পর্ব লিখেছি আমি আজকে নিয়ে আসেছি আরেকটি প্রধমিক পর্ব। জুমলা বা ওয়ার্ডপ্রেস অথবা পিএইচপি যাই বলেন সব কিছুর [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

সময়ের অভাবে আসলে লিখা হচ্ছে না আবারো শুরু করে দিলাম ওয়েবসাইট তৈরি করুন জুমলা (CMS) দিয়ে – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল এর ক্লাস ৫ আজকে আমরা আলচনা করবে জানব Layout সম্পর্কে। মানে হচ্ছে একটি ওয়েবসাইটের হোম পেজের ফুটার, হেডার সম্পর্কে ধারনা এবং [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

আপনার সবাইকে স্বাগতম জানাই আমার ওয়েবসাইট তৈরি করুন জুমলা (CMS) দিয়ে – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস ৬ এ। আজকে আমি দেখাবো কিভাবে আপনার জুমলা সাইটে লগিন করে অ্যাডমিন প্যানেল থেকে আপনি বিভিন্য ধরনের আর্টিকেল তৈরি করতে পারবেন। আর্টিকেল টি একটি ব্লগ [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

আবারো সবাইকে স্বাগতম ধারাবাহিক জুমলা টিউটোরিয়ালে। আমরা আসতে আসতে অনেক কিছু শিখা শুরু করে দিয়েছি, জুমলা সম্পর্কে ধারনা নিলাম, ইন্সটল করার ৩টি সিস্টেম দেখেছি, আর্টিকেল তৈরি করা দেখলাম, জুমলা ফ্রন্ট পেজের লে-আউট দেখে নিলাম এবার আমরা আরেকটি জিনিশ দেখে নিব [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

কি খবর সবার? ভালই আছেন মনে হয়? আপনার সবাইকে স্বাগতম জানাই আমার ওয়েবসাইট তৈরি করুন জুমলা (CMS) দিয়ে – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস ৮ এ। আসা করি সবাই নিয়মিত পড়ছেন আমার আর্টিকেল গুলো। নতুন ইউসার রা আমার প্রোফাইল ভিসিট করে পুরনো [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

কি খবর সবার? ভালই আছেন মনে হয়? আপনার সবাইকে স্বাগতম জানাই আমার ওয়েবসাইট তৈরি করুন জুমলা (CMS) দিয়ে – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস ৯ এ। আসা করি সবাই নিয়মিত পড়ছেন আমার আর্টিকেল গুলো। নতুন ইউসার রা আমার প্রোফাইল ভিসিট করে পুরনো [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

আবারো সবাইকে স্বাগতম জানাই আমার ওয়েবসাইট তৈরি করুন জুমলা (CMS) দিয়ে – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস ১০ এ। আসা করি সবাই নিয়মিত পড়ছেন আমার আর্টিকেল গুলো। নতুন ইউসার রা আমার প্রোফাইল ভিসিট করে পুরনো পর্ব গুলো দেখে নিন। নয়ত নতুন পর্ব [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

আবারো সবাইকে স্বাগতম জানাই আমার ওয়েবসাইট তৈরি করুন জুমলা (CMS) দিয়ে – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস ১১ এ। আসা করি সবাই নিয়মিত পড়ছেন আমার আর্টিকেল গুলো। নতুন ইউসার রা আমার প্রোফাইল ভিসিট করে পুরনো পর্ব গুলো দেখে নিন। আজকে আমি দেখব [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
joomla-tutorial

আজকে আমরা শিখব কিভাবে জুমলার extensions ইন্সটল এবং আনইন্সটল কতে হবে। extensions হচ্ছে 3rd পার্টি কিছু Components, Modules, Plugins, Templates, অথবা Languages হতে পারে। মানে হচ্ছে আমরা আমাদের সাইটের ডিজাইন উন্নত এবং নতুন নতুন ফিচার যুক্ত করতে চাইলে আমাদের এই সকল [আরও পড়ুন...]



লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস

কেমন আছেন সবাই? জুমলা নিয়ে পোস্ট করতে গিয়ে বেশ ভালো লাগছে ফেসবুকে সবাই খুব উৎসাহ দিচ্ছে সত্যি কথা বলতে আমি জুমলা লাইক করি না এবং খুব যে এক্সপার্ট সেটাও কিন্তু নয়। তবে যতটুক পারি এবং নেট থেকে কালেকশন করে দেয়া আরো বিস্তারিত পড়ুন


লিখেছেন টিজে মহা প্লাবন
joomla logo জুমলা (CMS) দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করুন – ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল ক্লাস
কেমন চলছে সবার? আসা করি ভালই আছেন? নিয়মিত পড়ছেন কি আমার লিখা এই টিউটোরিয়াল গুলো? আসা করি যাদের শিখার আগ্রহ আছে তারা নিয়মিত আছেন আমার সাথে। আজকে খুব ই কষ্টকর একটি জিনিস শিখাব। আজকে আমরা দেখব কিভাবে জুমলার একটি টেম্পলেট আরো বিস্তারিত পড়ুন

Thursday, June 13, 2013

১৩ ব্লগােরর সাফল্য দেখুন যারা প্রতি মাসে ৫ থেকে ১০ হাজার ডলার আয় করছেন তারা পারেল আপনি পারবেন না কেন?

ব্লগিং নিয়ে হতাশা! দেখুন ১৩ ব্লগারকে যারা প্রতিমাসে ৫ থেকে ৪০ হাজার ডলারে আয় করছেন। উনারা পারলে আপনি কেন পারবেন না? অনুকরণ নয়, অনুসরণ করে অনুপ্রেরণা নিয়ে নতুন উদ্যোমে শুরু করুন।

১৩ ব্লগার যারা প্রতিমাসে ৫ থেকে ৪০ হাজার ডলার আয় করেন।

১। http://mypage91.blogspot.com এই সাইটের অওনারের নাম নপি। উনি মূলত ওয়েব ডিজাইন এবং গ্রাফিক ডিজাইন নিয়ে লিখা লিখি করেন। ব্যানের এডভার্টাইজমেন্টের মাধ্যমে এই সাইট থেকে ৮০০০ ডলার আয় হয়।

২। http://sixrevisions.com/: সিক্স রিভিশনে টেকনোলজি, ওয়েব এপপ্লিকেশন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ওয়ার্ডপ্রেস বিষয়ে লেখা হয়। জেকব গুব সাইটের ফাউন্ডার। এই সাইটে বিভিন্ন ব্যানের এডভার্টাইজমেন্ট থেকে ৯০০০ ডলার আয় হয় প্রতিমাসে।

৩। http://www.overheardinnewyork.com/: বিভিন্ন মনিষীর উক্তি নিয়ে সাইটটি। শুধুমাত্র এডস স্পেস সেল করে মাইকেল মেলিস প্রতিমাসে ৯০০০ ডলারের উপরে আয় করেন এই সাইট থেকে।

৪। http://www.sizlopedia.com/: পাকিস্তানের সাদ হামিদ সিজলোপেদিয়ার ফাউন্ডার। প্রতিমাসে ১১০০০ ডালার আয় করেন তিনি এডসেন্স এবং বিভিন্ন সিপিএম বেসড নেটওয়ার্ক থেকে।

৫। http://abduzeedo.com/: ফেবিও সাসসো মূলত এই সাইটে গেজেট এবং টেকনোলজি নিয়ে লেখেন। গুগল অ্যাডসেন্স এবং বাই সেল এডস নেটওয়ার্ক থেকে ফেবিও ১২ হাজার ডলারের উপরে আয় করেন।

৬। http://freelanceswitch.com/: ফ্রিল্যান্সারদের বিভিন্ন টিপস দিয়ে উদ্বুদ্ধ করতেই কোলিস টায়িড এই সাইটটি চালু করেছেন। পেইড মেম্বারশিপ অফারের মাধ্যমে এই সাইট থেকে প্রায় ১৫০০০ ডলার আয় হয়।

৭। http://www.pcmech.com/: ডেভিড রাইস্লি পিসি মেক সাইট থেকে অ্যাডসেন্স এবং বিভিন্ন অ্যাফিলিয়েট নেটওয়ার্ক এর মধ্যমে ১৬০০০ ডলার আয় করেন।

৮। http://smartpassiveincome.com/: চমৎকার লেখক প্যাট ফ্লেইন, স্মার্ট পেসিভ ইঙ্কাম সাইটটিতে মূলত ইন্টারনেট মার্কেটারদের নিয়েই লিখালিখি হয়। ২১০০০ ডলারেরও উপরে আয় অ্যাফিলিয়েট বা রেফারেল লিংক থেকে।

৯। http://www.coolest-gadgets.com/: এল্যন কার্ল্টন কুলেস্ট গেজেটসের ফাউন্ডার। বিভিন্ন অ্যাফিলিয়েট নেটওয়ার্ক এবং অ্যাডসেন্স থেকে প্রতি মাসে তিনি ৩০০০০ ডলারেরও বেশি আয় করেন।

১০। http://www.shoemoney.com/: সোমানি সাইট থেকে জেরেমি প্রায় ৩০০০০ হাজার ডলারেরও বেশি আয় করেন প্রতিমাসে। মূলত প্রাইভেট এডভার্টাইজিং সিস্টেমের মাধ্যমেই উনার আয়।

১১। http://kotaku.com/: কোটাকু হচ্ছে গেম রিলেটেড ব্লগ, এর ফাউন্ডার নিক ডেন্টন। সাইট থেকে আয় করে ৩২ হাজার ডলার।

১২। http://talkingpointsmemo.com/: চমৎকার একটি সাইট টকিং পয়েন্টস মেমো, সাইটের মালিক জসুয়া মাইক মার্শাল। সাইটটিতে বিভিন্ন ব্রেকিং নিউজ থাকে। ব্যনার এডভার্টাইজমেন্ট থেকে আয় হয় ৪০০০০ ডলার।

১৩। http://www.stevepavlina.com/: শেল্ফ ডেভেলপমেন্ট এবং মোটিভেশনাল লিখালিখির মাধ্যমে জনপ্রিয় স্টীভ পাভলিনা। ডিজিটাল ইনফো প্রডাক্ট সেল করে প্রতিমাসে প্রায় ৪৫,০০০ আয় হয় এই সাইটটি থেকে।